Jannatul Mawa

September 8, 2021 0 By JAR BOOK

 কবি ও লেখক পরিচিতি

Jannatul Mawa
Student
Dhanmondi, Dhaka

নীল চুড়ি

জান্নাতুল মাওয়া

বুকের মাঝে মস্ত এক তুমি থাকা চাই,
বর্ষাবিকেলে পাপড়ি’র পানি ছুয়ে বলে দিবে
ভালোবাসি।
এলোচুলে নাক ডুবিয়ে বলবে,
এইতো আমি এসেছি।
বুকপকেটে করে নিয়ে আসবে
এক-রাশ ভালো থাকা।
আমায় বোকা বানিয়ে কপালে চুমু একে দিবে।
যার পাজরে আমার চিবুক সারা জনম বাহানা খুঁজবে।

বুকের মাঝে মস্ত এক তুমি থাকা চাই,,
সেই তুমি-আমার নাকছবিটার মায়ার পড়বে।
মায়ায় পড়বে আমার এলোমেলো শাড়ী’র কুচিতে।
মায়ার প্রবল করাঘাতে যে হয়তো ভেঙে দিবে-
আমার হাতের নীল কাচের চুড়িগুলো।

নিঃশ্বাসে নিঃশব্দে বলে দিবে – ভালোবাসি।

সেই ‘তুমি’ খুজে বেড়ায় আমার নীল কাচের চুড়ি।”

শেষ বসন্ত

জান্নাতুল মাওয়া

তোমার ‘ভুল’ অধ্যায়ের প্রতিটা শব্দ-
ভালোবেসে বাচিঁ আমি।
তোমার ভুল’কে ঘিরেই,
আমার এই পরিত্যাক্ত নগরী।

এ নগরীর প্রতি মোড়ে থাকা-
ভাঙা ল্যাম্পপোস্ট আধখানা চাঁদের মতো।

তোমার স্মৃতির আবর্জনা ঠাসা স্তূপ-
প্রতিটি গলিমুখে।

সেই নগরীর চিরচেনা জায়গা-
রুনু বু’র অংকের প্রাইভেট
আর সেই লেকপাড়,
রবীন্দ্রসরোবর আজ প্রেম নিষিদ্ধ বলে ঘোষিত।

এই নগরীতে তোমার কোন প্রিয় রঙের-
ছড়াছড়ি হয়না আর।
প্রতিটি অঙ্গনে রয়েছে আমার জমানো নীল,
আমার কষ্ট।

অনুভূতিগুলো আজও
বোবা পাখির মতোন উড়ে বেরায় নগরীর-
সেই ভাঙা ল্যাম্পপোস্টে,
সেখানের নির্ঘুম প্রান আমি।
কখনো কখনো-
তোমার স্মৃতির আবর্জনার সেই স্তুপে
ব্যার্থ কাক হয়ে অনিশ্চিতকালের অপেক্ষায় পরে রই।

শেষ তিনটি বসন্ত পার করে দিয়েছি আমি-
এই পরিত্যাক্ত নগরীতে,
প্রতিটি দেয়ালে খুজে পেয়েছি প্রেমহীনতার গল্প-
বিবর্ণ অধ্যায়।
আর পারছিনা-
নগরীর বায়ু আজ বিষাক্ত
গ্রাস করে নিচ্ছে আমায়।
তবে এই নগরী আমাকে কথা দিয়েছে-
”আরেকটা বসন্ত উপহার দিবে”

শেষ বসন্তে কি তুমি মেনে নিবে-
তোমার বলা সত্যের মিথ্যা বানান?
হাটবে আমার সাথে-
আয়ুরেখা ধরে?

পরিত্যক্ত নগরী পাড়ি দিবো আমরা,
নগরীর প্রতিটি বাকে আঁকবো ভালোবাসার চিহ্ন।

আসবে???