মা

October 14, 2020 0 By jarlimited

নুরউদ্দিন তালুকদার

মা, তুমি মহান,তুমি অতুলনীয়,
তোমার আদরের স্নেহে সিক্ত আমি এই ধরায়।
তোমায় দিয়েছি অনেক দুঃখ কষ্ট ;
আমার জন্মের পূর্বে তুমি ছিলে জর্জরিত।

কতোই না দুঃখ কষ্টের সহ্যের মোহে,
আমায় দিয়েছো ঠাঁই তোমারই অন্তরে।
সবকিছুর আড়ালে লুকিয়ে রেখেছো-
তোমারই শাড়ির আঁচলে।

আমার জন্মের পর, অগ্নির দাবানল-
এড়িয়ে, তুমি চলেছ তোমার আপন গতিতে;
শুধুমাত্র এই নিষ্পাপ ছোট শিশুটির পানে তাকিয়ে।
ঝড়ের রাতে, করেছো আমায় রক্ষা!
তোমারই মায়ার ডোরে।

প্রকৃতির কোলাহলময় তিমির রাতে,
যখন ভেঙ্গে পড়তাম আমি অঝোরে কান্নায়,
চারদিকের মানুষ জেগে উঠতো;
হত তারা হৃতসর্বস্ব!
তখন ও তুমি করেছো আমায় ত্রাণ!
দিয়েছো এক শান্তনার বাহার।

পদেপদে তুমি করেছো অনেক ত্যাগ,
দিয়েছো আমায় সুন্দর জীবন।
ভুলবশত; যখন ছিলাম আমি পাপকাজে,
সমাজের লোকজন করেছে আমায় নিন্দা-
দিয়েছে অনেক অপবাদ।

শূন্য করে দিয়েছে থলি,
এমন কঠিন দুর্যোগ সময়ে ও তুমি-
সবকিছুর উর্ধ্বে নিয়েছো বুকে টেনে!
দেখিয়েছো আমায় আল-আমিনের সত্যের পথ।
শুনিয়েছো তিনির জীবন কাহিনী;

করেছো আমায় মুগ্ধ, তাহার প্রেমে!
হয়েছি স্নিগ্ধ আমি ঐ অন্তরালে,
তখন চলেছি আমি সত্যের পথে-
এসেছে অনেক বাধা,
দিয়েছো তুমি আমায় অনেক ভরসা।

ব্যর্থতার গ্লানিতে, উচ্চতার চরম শিখরে-
যখন পৌঁছে গেছি আমি সত্যিই একদিন!
তাইতো মা বলি, সত্যিই তুমি মহান,
পেয়েছি তোমার পদতলে আমার জান্নাত।

কবিতা

অনুপ্রেরণা
নুরউদ্দিন তালুকদার

তাহার সিক্ত পদচারণায় ছিলাম আমি অবাক!
তাহার সে-ই হাত ধরে ছুটে ছিলাম অনেক দূরে…..
সেদিন অবাক পৃথিবী তাকিয়ে ছিল আবছায়ার দিকে।
রিক্ততার ব্যাক্ত সুরে ডাক দিয়েছিল আমায়!
তাকাইনি তাঁর দিকে!
শুনিনি তাঁর মধুর কথা!
কেন আজ এই অবহেলায় পরে গেছো তুমি?
তোমার তো তারুণ্যের বয়স ছিল!
তুমিতো অগ্রসর হয়েছিলে অনেকটা পথ;
আমি তো ডাক দেইনি!
বলতে চেয়েছি এগিয়ে যাও…..
স্বপ্ন পূরণের দিকে।
তোমার আশার এক গুচ্ছ ব্যঞ্জনা নিয়ে-
ফিরে এসো তোমার দাবিত-
বাড়ির ছোট কুঠিরের সীমানায়।
সেবার মধ্য দিয়ে জয় করে নাও;
সহস্র মানুষের মন।
যেন, গেঁথে থাকে তাদের অন্তরে-
আজীবন তোমার কীর্তির অমর;
পাশে থেকো তাদের সারাক্ষণ,
শোনাও মর্মস্পর্শের কথা,
উতলা করে তোল ব্যাকুলভাবে!-
আনন্দের মোহে ভরিয়ে দাও;
অগ্রসর হও তুমি দ্বিগবিদিক,
আমার এই কিঞ্চিৎ প্রেরণায়।

Date: October 4, 2020
Time: 9:16 am