অ্যালোভেরার উপকারিতা

May 13, 2022 0 By jarlimited

অ্যালোভেরা আমাদের সবার কাছেই পরিচিত একটি নাম। অ্যালোভেরা কে ঘৃতকুমারী নামে ও বলা হয়। এটি ক্যাকটাস বা ফণীমনসা জাতীয় ভেষজ উদ্ভিদ। অ্যালোভেরাতে রয়েছে ক্যালসিয়াম, সোড়িয়াম, পটাশিয়াম, জিংক, আয়রন, ভিটামিন এ, বি৬ ও বি২ ইত্যাদি। অ্যালোভেরা স্বাস্থ্যরক্ষার বিভিন্ন কাজে লাগে এবং এটি খুবই প্রচলিত একটি ভেষজ উদ্ভিদ। অ্যালোভেরার রয়েছে বিভিন্ন গুণাগুণ। জেনে নেওয়া যাক অ্যালোভেরার উপকারিতা সম্পর্কে-

ত্বকের যত্নে-
অ্যালোভেরার জেল ত্বকের জন্য গুরুত্বপূর্ণ একটি উপাদান। এর অ্যান্টি-ইনফ্লামেনটরী উপাদান ত্বকের ইনফেকশন দূর করে এবং ব্রণ হওয়ার প্রবণতা কমায়।
এটি ত্বকের রোদে পুড়া দাগ দূর করতে সাহায্য করে ও অ্যালোভেরার জেল ত্বকের উজ্জলতা বৃদ্ধি করে, ত্বককে করে তুলে মসৃণ। এছাড়াও এটি বয়সের ছাপ দূর করে।

চুলের যত্নে-
অ্যালোভেরা জেল এ থাকে অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টিফাঙ্গাল যা চুল পড়া ও খুশকির সমস্যা দূর করতে সাহায্য করে ও চুলের শুষ্ক ভাব দূর করে। এছাড়াও অ্যালোভেরার জুসে প্রোটিয়োলাইটিক এনজাইমস নামে এক ধরনের উৎসেচক থাকে, যা তালুর ত্বকের কোষগুলোর স্বাস্থ্যরক্ষায় বিশেষভাবে কার্যকর।

হজম প্রক্রিয়া-
অ্যালোভেরা হজম শক্তি বৃদ্ধি করে থাকে। এটি অন্ত্রের প্রদাহ সৃষ্টিকারী ব্যাকটেরিয়া রোধ করে ফলে হজম শক্তি বৃদ্ধি পায়। এছাড়াও অ্যালোভেরার অ্যান্টি-ইনফ্লামেনটরী উপাদান পাকস্থলী ঠান্ডা রাখে, গ্যাস এর সমস্যা দূর করে।

ওজন কমাতে-
অ্যালোভেরার জুস ওজন হ্রাস করতে বেশি কার্যকরী। অ্যালোভেরা জুসের অ্যান্টি- ইনফ্লামেনটারী উপাদান ক্রনিক প্রদাহ রোধ করে ওজন হ্রাস করে থাকে। ক্রনিক প্রদাহের কারণে শরীরে মেদ জমে থাকে।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে-
অ্যালোভেরা হল অ্যান্টি ম্যাইকোবিয়াল এবং অ্যান্টি ফাঙ্গাল সমৃদ্ধ ভেষজ গাছ। অ্যালোভেরার জুস নিয়মিত পানে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায় ও দেহের টক্সিন দূর হয়। দেহ সুস্থ থাকে।

ডায়াবেটিস প্রতিরোধ করে-
অ্যালোভেরার জুস গ্লুকোজ কমায়। রক্তে সুগারের পরিমাণ ঠিক রাখে, দেহে রক্ত সঞ্চালন বজায় রাখে।
বলা হয়ে থাকে, অ্যালোভেরার জুস নিয়মিত পান করলে ইনসুলিন সেনসিটিভিটি বাড়ে, রক্তে শর্করার পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ করাটা সহজ হয়ে আসে।

এছাড়া অ্যালোভেরা জেলে প্রায় ২০ রকম অ্যামিনো অ্যাসিড আছে যা ইনফ্লামেশন এবং ব্যাকটেরিয়া রোধ করে হজম, বুক জ্বালাপোড়া রোধ করে থাকে।